Tuesday , April 23 2019
Home / Informational news / সেন্ট মার্টিনে কাঁকের বসতি

সেন্ট মার্টিনে কাঁকের বসতি

সেন্ট মার্টিন্‌স দ্বীপ  বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের উত্তর-পূর্বাংশে অবস্থিত একটি প্রবাল দ্বীপ। এটি কক্সবাজার জেলার টেকনাফ হতে প্রায় ৯ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং মায়ানমার-এর উপকূল হতে ৮ কিলোমিটার পশ্চিমে নাফ নদীর মোহনায় অবস্থিত।

আগে দুঃসংবাদটা দিয়ে রাখি, সেন্ট মার্টিন যে অদূর ভবিষ্যতে হারিয়ে যাবে! এমন আশঙ্কাই করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান

অধ্যাপক আমির হোসেন ভূঁইয়া। বাংলাদেশের জনপ্রিয় দর্শনীয় এই স্থান নিয়ে তিনি প্রায় এক যুগ ধরে গবেষণা করছেন। তিনিই জানালেন, সেন্ট মার্টিনে একসময় কাক ছিল না। এমনকি ছিল না কুকুরও। সেন্ট মার্টিনে যাঁরা ঘুরে
এসেছেন, তাঁরা হয়তো অসংখ্য কাক আর কুকুরের আনাগোনা দেখে মনে মনে প্রশ্নটা করেছেন—এই দূর দ্বীপে এরা এল কোথা থেকে!

অধ্যাপক আমির হোসেন ভূঁইয়া বললেন, ‘যেখানেই ময়লা থাকে, কাক সেখানেই ছুটে যায়। আবাস গড়ে এবং বংশবিস্তার করে।’ কাক কীভাবে ৯-১০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে সেন্ট মার্টিন গেল? আমির হোসেন ভূঁইয়া জানালেন, পাখিরা মাইলের পর মাইল উড়তে পারে। তাদের জন্য এটা তেমন দূরত্বই নয়। তা ছাড়া কক্সবাজার থেকে মানুষ যেভাবে যায়, কিছুটা সেভাবেও যেতে পারে কাক। অর্থাৎ কিছুটা উড়ে এবং কিছুটা নৌযানে চড়ে।

About Juwel Rana

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *